পঞ্চম ধাম এবার ভারতে নয়, হতে চলেছে কম্বোডিয়ায় বিস্তারিত জানুন

 হিন্দুপ্রধান দেশ ভারতের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে রয়েছে মন্দির। যা বিদেশের মানুষের কাছে এক অত্যন্ত আকর্ষণের জিনিস। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে অবস্থিত স্বর্ণমন্দির কেদারনাথের মন্দির সহ অন্যান্য বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় মন্দির হয়েছে। পাশাপাশি ভারতে রয়েছে চার ধাম যথা তারকা বদ্রীনাথ জগন্নাথ পুরী এবং রামেশ্বরম। তবে ভারতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বিদেশেও মন্দির নির্মাণ করছে, তাই তো পঞ্চম ধাম তৈরি হতে চলেছে কম্বোডিয়ায়।

 

সেখানেই ১৮০ ফুটের একটি শিবমূর্তি তৈরি হতে চলেছে। আর এই পঞ্চম ধাম নির্মাণের জন্য সে দেশের সরকার ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে আরএসএসের নেতা ইন্দ্রেশ কুমার জানিয়েছেন পূর্ব এশিয়ার মানুষের মধ্যে হিন্দু ধর্মের প্রচার ও প্রসার ঘটাতে এই মন্দির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে, কিন্তু কম্বোডিয়ায় ৯৭ শতাংশ জনসংখ্যাই হলো বৌদ্ধ।

জানা গিয়েছে এই পাঁচধাম টি আঙ্কোর ভাট অবস্থিত বিশ্বের সব থেকেই বিশ্ব মন্দিরের মাত্র ত্রিশ কিলোমিটার দূরে। তাই মনে করা হচ্ছে যাঁরা আঙ্কোর ভাটের মন্দির দেখতে আসবেন তাঁরা অবশ্যই এই শিব মন্দির দর্শন করে যাবেন। জানা গিয়েছে এই বিরাট শিবমন্দির তৈরি করতে কোটি কোটি টাকা ব্যয় হবে।

 

অন্য দিকে উত্তর প্রদেশ সরকারের পর থেকে বিশ্বের সব থেকে বড় রাম মন্দির নির্মাণের প্রস্তুতি নিচ্ছে। যেটি ২৫১ মিটার উঁচু, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জানিয়েছেন, অযোধ্যার সরোজ নদীর কাছে এক শ হেক্টর জমিতে এই রামের মূর্তি স্থাপন করা হবে। আর এই প্রকল্পের জন্য ইতিমধ্যেই ৪৪৭.৪৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার।

 

তবে আমাদের দেশে মন্দির নির্মাণের জন্য সরকার আর্থিক ব্যয় করছে এটা মনে হতেই পারে কিন্তু তার তুলনায় যে বিদেশের মাটিতেও মন্দির নির্মাণ, মূর্তি নির্মাণের আলাদা উদ্যোগ রয়েছে তা জানলে খানিকটা অবাকই হতে হয়।