প্রয়াত প্রাক্তন সাংসদ-কবি কৃষ্ণা বসু, শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে

 প্রয়াত রাজনীতিক-শিক্ষাবিদ কৃষ্ণা বসু। একাধারে তিনি ছিলেন শিক্ষক এবং রাজনীতিবিদ। ১৯৩০ সালের ২৬ ডিসেম্বরে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন কৃষ্ণা বসু। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যের উপর এম এ পাশ করেন তিনি। বসু পরিবারে বিয়ে হয় তাঁর। নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর বড় ভাই শরৎ চন্দ্র বসুর পুত্র শিশির বসুর বউ হয়ে বসু পরিবারে আসেন তিনি।

 

পরে কলকাতা সিটি কলেজে ৪০ বছর শিক্ষকতা করেন। ইংরেজি বিভাগের প্রধান ছিলেন তিনি। আট বছরের জন্য কলেজের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। এছাড়াও তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে যাদবপুর কেন্দ্রে, তিনবারের সাংসদ ছিলেন। আজ শনিবার সকাল ১০টা ২০ মিনিট নাগাদ, কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে পরলোক গমন করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি।

 

এর আগে চার বছর আগে একবার হার্ট অ্যাটাক ও হয় তাঁর। গত চার পাঁচদিন ধরে হৃদযন্ত্রের সমস্যা নিয়ে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। এদিন মায়ের পাশে ছিলেন দুই ছেলে সুগত বসু ও সুমন বসু। শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যুর খবর জানান তাঁর দুই ছেলে। তাঁরা জানিয়েছেন, কৃষ্ণা বসুর মরদেহ প্রথমে তাঁর নিজবাস ভবনে নিয়ে যাওয়া হবে। নেতাজী ভবনে দীর্ঘক্ষণ রাখা হবে তাঁর দেহ। এবং কৃষ্ণা বসু র শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে কেওড়াতলা মহাশ্মশানে।