বিজেপি শাসিত অসমে এ বৎসর নভেম্বর মাস থেকে বন্ধ হচ্ছে সব সরকারি মাদ্রাসা  

বেতার বার্তা ডিজিটাল ডেস্ক : সরকার পরিচালিত রাজ্যের সমস্ত মাদ্রাসা বন্ধের সিদ্ধান্ত নিল অসম। জনগণের টাকায় ধর্মীয় শিক্ষাদান চলতে পারে না, তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অসমের মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। আগামী মাসেই এবিষয়ে সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানকার বিজেপি সরকার। বেসরকারি উদ্যোগে চলা মাদ্রাসাগুলির ক্ষেত্রে রাজ্যের কিছু বলার নেই বলেই জানিয়েছেন হিমন্ত বিশ্বশর্মা।

অসমে আগামী নভেম্বর মাস থেকে বন্ধ হচ্ছে সরকারি মাদ্রাসা । এনিয়ে পুজোর পরেই বিজ্ঞপ্তি জারি হবে বলে জানিয়েছেন অসমের মন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা । বৃহস্পতিবার তিনি জানিয়েছেন, জনগণের অর্থে কোনও ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলতে পারে না। এই মর্মে আগামী মাসেই বিজ্ঞপ্তি জারি হতে চলেছে বলে জা‌নিয়েছেন তিনি। এদিন তিনি বলেন, ‘‘সরকারি টাকায় কোনও ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালানোর অনুমতি দেওয়া হবে না। এই মর্মে নভেম্বরে আমরা একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করব। তবে বেসরকারি মাদ্রাসা নিয়ে আমাদের কিছু বলার নেই।’
’তথ্য বলছে, অসমে ৬১৪টি সরকার পরিচালিত মাদ্রাসা আছে। সরকার চালিত টোল আছে ১০০টি। মাদ্রাসাগুলির জন্য সরকারের বছরে ৩-৪ কোটি টাকা খরচ হয়। টোলগুলির জন্য খরচ হয় ১ কোটি টাকা।

যদিও মন্ত্রীর এই বিবৃতির পর সাংসদ বদরুদ্দিন আজমল জানিয়েছেন, যদি বিজেপি সরকার মাদ্রাসাগুলি বন্ধ করে দেয় তাহলে আগামী বছরের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে তাঁর দল আবার তা চালু করবে। তিনি বলেন, ‘‘আপনারা মাদ্রাসা বন্ধ করতে পারবেন না। বর্তমান সরকার যতই জোর করে তা বন্ধ করুক না কেন, আমরা ৫০-৬০ বছরের এই মাদ্রাসাগুলি ফের চালু করব।’’

তিনি বলেছিলেন, কোনও ধর্মনিরপেক্ষ দেশে সরকারের অর্থে ধর্মীয় শিক্ষাদান চলতে পারে না। কিন্তু বৃহস্পতিবার তিনি জানিয়েছেন, ‘‘ সংস্কৃত টোলের ব্যাপারটা ভিন্ন।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘সরকারি সংস্কৃত টোলের ক্ষেত্রে অভিযোগ, সেগুলির পরিচালনায় স্বচ্ছতা নেই। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব।’’
তথ্য বলছে, অসমে ৬১৪টি সরকার পরিচালিত মাদ্রাসা আছে। সরকার চালিত টোল আছে ১০০টি। মাদ্রাসাগুলির জন্য সরকারের বছরে ৩-৪ কোটি টাকা খরচ হয়। টোলগুলির জন্য খরচ হয় ১ কোটি টাকা ।

বিশ্ব, রাজ্য ,দেশের সমস্ত খবর সবার আগে পেতে ভিজিট করুন  www.betarbarta.com