আবার আজ থেকে সৌদি আরব প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা! ভারত সহ ২০ দেশের নাগরিকদের

আবার আজ থেকে সৌদি আরব প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা! ভারত সহ ২০ দেশের নাগরিকদের।

বেতার বার্তা নিউজ ডেস্কঃ Covid-19 করোনা পরিস্থিতি এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেনি সারা বিশ্ব। মুহু মুহু চরিত্রবদল করছে কোভিড ভাইরাস। ইতিমধ্যে ব্রিটেনে পরে আবার দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন প্রজাতির সন্ধান মিলেছে। নতুন প্রজাতির করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ভারত সহ ২০টি দেশের নাগরিকদের ভ্রমণ ও প্রবেশের উপরে ফের নিষেধাজ্ঞা জারি করল সৌদি প্রশাসন।

৩ রা জানুয়ারি বুধবার স্থানীয় সময় রাত ৯টা থেকে এই নিষেধাজ্ঞা চালু হবে বলে সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। তবে যে সব দেশের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে সেই সব দেশের কূটনীতিবিদ ও স্বাস্থ্যকর্মী এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা নয়া নির্দেশিকার আওতায় পড়বেন না।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকেই কড়া বিধিনিষেধের পথে হেঁটেছিল সৌদি প্রশাসন। এমনকী বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বিমান পরিষেবাও বন্ধ রেখেছিল। পরে ধাপে-ধাপে বিমান পরিষেবা চালু করা হয়। গত ৩ জানুয়ারি থেকে বিমান পরিষেবার উপরে নিষেধাজ্ঞা সম্পূর্ণ তুলে নেওয়া হয়। ফলে স্বাভাবিক ছন্দেই ফিরছিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি।

কিন্তু বিদেশ থেকে আসা বেশ কয়েকজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পরেই নিষেধাজ্ঞা চালু করা হয়। দেশটির স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সুপারিশ পাঠিয়ে বেশ কয়েকটি দেশের নাগরিকদের প্রবেশ ও ভ্রমণের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারির অনুরোধ জানানো হয়। সেই অনুরোধ মেনে মঙ্গলবার সৌদির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ২০টি দেশের নাগরিকদের ভ্রমণের উপরে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

যে সব দেশের নাগরিকদের প্রবেশের ক্ষেত্রে ‘নো-এন্ট্রি’ জারি করা হয়েছে, সেই দেশগুলি হলো, সংযুক্ত আরব আমিরাত, জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র, আর্জেন্টিনা, আয়ারল্যান্ড, ইতালি, পাকিস্তান, ব্রাজিল, পর্তুগাল, ইন্দোনেশিয়া, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স, তুরস্ক, লেবানন, মিশর, ভারত এবং জাপান।

প্রসঙ্গত করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেও পুরোপুরি সমস্যার সমাধান হয়নি। পুরানো করোনা ভাইরাস রয়েছে বিশ্বজুড়ে। সম্প্রতি ব্রিটেনের পরে দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন প্রজাতির করোনা ভাইরাসে‌ শিশু এবং বয়স্করা উভয়ই আক্রান্ত হচ্ছেন। নতুন প্রজাতির ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েও মৃত্যু হচ্ছে মানুষের,হু ঘোষণা অনুযায়ী আগের ভাইরাস গুলি থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার করোনা ভাইরাস দ্বিগুণ শক্তিশালী । সেই আশঙ্কা থেকে দেশকে রক্ষা করার জন্যই সৌদি প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গেছে ।

Comments