আরামবাগ হোটেল এন্ড রিসোর্টে সৈয়দ মনিরুল হুদা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির প্রারম্ভিক সভা

আরামবাগ হোটেল এন্ড রিসোর্টে সৈয়দ মনিরুল হুদা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির প্রারম্ভিক সভা।

বেতার বার্তা নিউজ ডেস্কঃ  নুর মোহাম্মদ, হুগলি সৈয়দ মনিরুল হুদা সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির উদ্যোগ ও আয়োজনে সোসাইটির সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি, মানবদরদী, সমাজসেবী,আরামবাগ রহোটেল এন্ড রিসোর্ট এর কর্ণধার সৈয়দ জিয়াজুর রহমান সাহেবের ব্যবস্থাপনায় আরামবাগ হোটেল এন্ড রিসোর্ট এর সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল কমিটির প্রারম্ভিক সভা।

সোসাইটির সহ-সভাপতি বিশিষ্ট সঞ্চালক, শিক্ষাবিদ ও ধারাভাষ্যকার সৈয়দ এহতেশাম মামুন সাহেব জানান – উক্ত অনুষ্ঠানে সৈয়দ জিয়াজুর রহমান সাহেব তাঁর এই সোসাইটির আগামী দিনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য দ্ব্যর্থহীনভাবে ব্যক্ত করেন। আগামী দিনে তিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্য পরিসেবা দেয়ার জন্য চিকিৎসালয় এবং শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে চলেছেন, এর জন্য তিনি এলাকার শুভবুদ্ধি সম্পন্ন বিশিষ্টজনদের আহ্বান করেন, তাঁদের সুপরামর্শ নিয়ে এগিয়ে চলার জন্য। তাঁরা এ ধরনের উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানান এবং প্রত্যেকেই তাদের উপযুক্ত মতামত ব্যক্ত করেন ও সুপরামর্শ দান করেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন সৈয়দ জিয়াজুর রহমান।

বিশিষ্ট দের মধ্যে আমন্ত্রিত ছিলেন মাননীয় ডাক্তার সুব্রত ঘোষ,ডাক্তার আনারুল হক, ডাক্তার অশোক কুমার নন্দী, ডাক্তার খলিলুর রহমান, প্রাক্তন অধ্যাপক ডক্টর ফাল্গুনী মজুমদার, প্রাক্তন অধ্যক্ষ ডঃ বানি প্রসাদ সেন, বিশিষ্ট শিক্ষক নিমাই চন্দ্র ঘোষ, প্রধান শিক্ষক সেখ নাসারুল গাউস, অধ্যাপক মাননীয় বিনয় মালাকার, প্রধান শিক্ষক শেখ মুহাম্মদ মহসিন, শিক্ষক শেখ আব্দুল্লাহ, মাওলানা মতিউর রহমান, মাওলানা জাকির হোসেন, মাওলানা ইসহাক, আব্দুর রহিম খান,শিক্ষক দেবায়ন ঘোষ, শিক্ষক শেখ আবজায়ুল হক, শিক্ষক মনোয়ার আলী, শিক্ষক বনমালী চক্রবর্তী, বিশিষ্ট শিক্ষক অনুপ দাস, বিশিষ্ট সমাজসেবী সেখ আজহার আলী, নাজির চৌধুরী, শেখ ইমতিয়াজ প্রমূখ ব্যক্তিত্বরা। মাওলানা মতিউর রহমান সাহেবের দোয়ার মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘোষিত হয়।

উল্লেখ্য সৈয়দ মনিরুল হুদা সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সভাপতি, বিশিষ্ট সমাজসেবী, আরামবাগ হোটেল এন্ড রিসোর্ট এর কর্ণধার শিল্পপতি, সৈয়দ জিয়াজুর রহমান অনেকদিন থেকেই গরিব- অসহায় মানুষকে বিভিন্নভাবে বিপুল সাহায্য করে চলেছেন।

করোনা, লকডাউন পরিস্থিতিতে গ্রাম থেকে শহর জুড়ে কমিউনিটি কিচেন, বিনামূল্যে বাজার, বস্ত্র বিতরণ, নগদ অর্থ বিতরণ, বেকার মানুষদের স্বনির্ভর করার জন্য টলি, ইঞ্জিন ভ্যান, টোটো প্রদান, কোভিদ হাসপাতালে সজ্জা প্রদান, বিনামূল্যে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা, ইয়াস ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রিপল খাদ্য সামগ্রী প্রদান, রক্তদান শিবির এছাড়াও সারা বছর ধরে তিনি,  তার সংগঠন সৈয়দ নুরুল হুদা সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি মাধ্যমে বিভিন্ন সমাজসেবা মূলক কাজ করে চলেছেন। তিনার সেবামূলক কাজে গ্রাম থেকে শহর জাতি-ধর্ম-বর্ণনির্বিশেষে বহু মানুষ উপকৃত হয়েছেন।

Comments